সিঙ্গাপুর

সিঙ্গাপুর ভ্রমণ – কিভাবে যাবেন, কেমন খরচ, কি কি দেখবেন ও অন্যান্য তথ্য

মাত্র ৪০ থেকে ৫০ বছরের ব্যাবধানে অনুন্নত তৃতীয় বিশ্বের একটি দেশ থেকে একটি পরিপূর্ণ উন্নত দেশে পরিণত হয়ে সিঙ্গাপুর একটি চমক সৃষ্টি করেছে। ১৯৬৫ সালে স্বাধীনতা প্রাপ্ত সিঙ্গাপুর ছিল অগোছালো, নিয়ন্ত্রনহীন এবং সংঘাতে পরিপূর্ণ একটি দেশ। কিন্তু তাঁরা সেখানে থেমে থাকেনি। যুগোপযোগী পরিকল্পনা এবং উপযুক্ত সিদ্ধান্ত গ্রহনের মাধ্যমে তাঁরা আজ নিজেদের দেশকে এমন এক পর্যায়ে নিয়ে গেছে যে তা এখন বিভিন্নও দেশের পর্যটকদের কাছে এক দারুণ আকর্ষণের নাম। আমাদের আজকের ব্লগে আমরা সিঙ্গাপুর ভ্রমণের বিভিন্নও দিক নিয়ে আলোচনা করার পাশাপাশি তাদের এই যুগান্তকারী পরিবর্তন নিয়েও কিছু কথা বলব।

Read more

আন্দামানে আনন্দঃ ভ্রমণের খুঁটিনাটি

দিন দিন কবি সাহিত্যিকেরা পৃথিবীর রং-রূপ নিয়ে কতোশতো কবিতা লিখে গেলো! কতো মানুষ ভ্রমণে গিয়ে ফিরে এসেছে সম্পূর্ণ অন্য এক মানুষ হয়ে, তার কোন ইয়ত্তা আছে! কে যেন লিখেছিলো,

“… তবুও পৃথিবীর কীট হয়ে এখনো সমুদ্র ভালোবেসে

সমুদ্রকে মনে করে তার দ্বিতীয় আবাস…”

 

আসলেই তাই! যুগ যুগ ধরে সমুদ্র-মানুষে কি এক ধরণের অম্ল-মধুর সম্পর্ক তৈরি হয়নি? এই সমুদ্রের কোল ঘেষেই তো জন্ম নিলো সভ্যতা, শুরু হলো অর্থনীতি, ঘুরে গেলো পৃথিবীর চাকা! এই ছোট ছোট দ্বীপের সাথে মানুষের যে বন্ধন- তা অস্বীকার করার কোন উপায় আছে? এখনো মন খারাপ করে কোথাও বসে থাকতে চাইলে ইচ্ছে হয় সমুদ্রের পার ঘেষে একটু বসি। এখনো পরিযায়ী পাখির মতো ঘুরে বেড়াতে চাইলে ইচ্ছে হয় ঘুরে বেড়াই দ্বীপান্তরে। এখনো ইচ্ছে হয় ছুটে যাই এমন কোথাও যেখানে দু’দন্ড শান্তি মিলবে, হাভাতের মতো টাকা খরচ না করেও নিরেট আনন্দ মিলবে। আর এসব একসাথে পেতে যেতে হবে- আন্দামান! Read more

turkey

ঘুরে আসুন তুরস্কঃ কোথায় যাবেন, কেমন খরচ ও অন্যান্য তথ্য

এশিয়া ও ইউরোপের মাঝামাঝি স্থানে তুরস্ক দেশটি অবস্থিত যা একসময় অটোম্যান সাম্রাজ্যের অংশ ছিল। তুরস্কের প্রায় পুরোটাই এশীয় অংশে পড়েছে। পর্বতময় আনাতোলিয়া এশিয়া মাইনর উপদ্বীপের অংশ। তুরস্কের বাকি অংশের নাম পূর্ব বা তুর্কীয় থ্রাস। এটি ইউরোপের দক্ষিণ-পূর্ব কোণায় অবস্থিত। এখানে তুরস্কের বৃহত্তম শহর ইস্তাম্বুল। তুরস্কে যেতে ভিসার জন্য বাংলাদেশে অবস্থিত টার্কিশ অ্যাম্বাসিতে যোগাযোগ করতে হবে।

তুরস্ক দূতাবাসের ঠিকানাঃ
বাড়ি নং-৭, রোড নং-২, বারিধারা, ঢাকা-১২১২
ফোন: ৮৮২২১৯৮, ৮৮১৩২৯৭, ৮৮২৩৫৩৬
ওয়েবসাইট- www.dakka.be.mfa.gov.tr

ভিসার আবেদনের ক্ষেত্রে আপনার পাসপোর্টে যদি আপনার পেশা সরকারী চাকুরীজীবি লেখা থাকে তাহলে সেক্ষেত্রে আপনাকে এন,ও,সি করিয়ে রাখতেই হবে। এনওসি মানে নো অবজেকশন সার্টিফিকেট। চাকুরিজীবি না হলে ছাত্রত্বের সনদ বা জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে বাকী কাগজ হালনাগাদ করতে হবে।

Read more

Reviewed by 46 People. - Rated: 4.0 / 5.0