বাংলাদেশ বিমানবাহিনী ও মহান মুক্তিযুদ্ধ

বাংলাদেশ বিমান বাহিনী – প্রতিষ্ঠা ও মহান মুক্তিযুদ্ধে তাঁদের ভূমিকা

বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের গৌরবগাঁথার প্রধান অংশ জুড়ে আছে দেশের উদ্যমী সাহসী মানুষ, যারা দেশকে ভালবেসে যার যার জায়গা থেকে ঝাপিয়ে পড়েছে হানাদার বাহিনীর মোকাবেলা করতে। ৯ টি রক্তাক্ত মাস! অন্যান্য দেশের তুলনায় ৯ মাস সময় হয়ত বা স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্য বেশী দীর্ঘ কোন সময় না। কিন্তু এই ৯ মাসে যে পরিমান হত্যাযজ্ঞ ও রক্তপাত হয়েছে, যে পরিমান নারীদের লাঞ্চিত করা হয়েছে, তার তুলনা ইতিহাসে নাই। সবচাইতে বড় কথা হল, একেবারে কোন রকম প্রস্তুতি ছাড়া একদম শুন্য থেকে মুক্তিবাহিনী নামক একটি বাহিনী তৈরি করা এবং সেই বাহিনীর দ্বারা অত্যাধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত পাকিস্তানি হানাদারদের  মোকাবেলা করা এবং মাত্র নয় মাসের মধ্যেই বিজয় ছিনিয়ে আনার মত কৃতিত্ব অন্য কোন জাতি দেখাতে পেরেছে কিনা আমার জানা নেই। এই মহান মুক্তিবাহিনী তৈরিতে যাদের অনস্বীকার্য অবদান, সেই বাংলার খেটে খাওয়া কৃষক, শ্রমিক, নারী ও ছাত্র জনতার পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেয়া তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের অধীনে কর্মরত বাঙালি পুলিশ, সেনা বাহিনী, নৌবাহিনী, ও বিমানবাহিনীর সদস্যদের প্রতি রইল অসীম শ্রদ্ধা।

Read more

Blogger. Music enthusiast. Free thinker.

Assistant Manager
Flight Expert.

www.flightexpert.com

ঢাকা বরিশাল বিমান টিকিট

ঢাকা বরিশাল বিমান টিকিট। ঢাকা বরিশাল বিমান ভাড়া, টিকিট, ফ্লাইট সহ সব তথ্য

ঢাকা বরিশাল রুটে বিমান ভ্রমণ সংক্রান্ত সব তথ্য

বাংলাদেশের দক্ষিনাঞ্চলের অন্যতম প্রধান একটি জেলা শহর বরিশাল। প্রাচীন কালে এর নাম ছিল চন্দ্রদ্বিপ। কীর্তনখোলা নদীর তীরে এটি বরিশাল বিভাগের সবচাইতে বড় শহর এবং বিভাগীয় সদর দপ্তর। বরিশালে রয়েছে দেশের প্রাচীনতম এবং দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম নদী বন্দর।

২০১৬ সালে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সমুদ্র বন্দর পায়রা বন্দরের উদ্বোধন করা হয় যা বরিশালের গুরুত্ব আরও অনেক বেশী বাড়িয়ে দিয়েছে। এর ফলশ্রুতিতে দেশের বড় বড় বিনিয়োগকারীরা বরিশালে আরও বেশী বিনিয়োগ করা শুরু করেছেন। এজন্য বরিশাল এবং তার আশেপাশে গড়ে উঠছে আরও নতুন নতুন কলকারখানা, শিল্প ও ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান।

Read more

Blogger. Music enthusiast. Free thinker.

Assistant Manager
Flight Expert.

www.flightexpert.com

দুবাই ভ্রমণ

দুবাই ভ্রমণ কেন করবেন । ১০ টি কারন যে জন্য দুবাই আপনার প্রিয় গন্তব্য হতে পারে

দুবাই আমাদের অনেকের কাছেই স্বপ্নের একটি গন্তব্য। যারা দুবাই সম্পর্কে কিছুটা হলেও জানেন তারা তো সুযোগ পেলে দুবাই ভ্রমণের জন্য এক বাক্যে রাজী হয়ে যাবেন! দুবাই এর জাঁকজমক ও জৌলুসপূর্ণ জীবন যাপন সবাইকে টানে। তবে অনেকেই আছেন যারা এ সম্পর্কে খুব বেশী জানেন না। তাদের উদ্দেশেই আমাদের আজকের ব্লগ।

দুবাই সংযুক্ত আরব আমিরাতের একটি প্রধান শহর। এটি সংযুক্ত আরব আমিরাতের একটি প্রধান আমিরাত বা প্রদেশ। এটি আরব আমিরাতের সাতটি প্রদেশের মধ্যে একটি প্রদেশ। এটি পারস্য উপসাগরের দক্ষিণ তীরে আরব উপদ্বীপে অবস্থিত। ১৮৩৩ সাল থেকে দুবাই শাসন করে আসছে আল মাকতুম পারিবার। দুবাইয়ের বর্তমান শাসকের নাম মুহাম্মদ বিন রশীদ আল মাকতুম। ৪,১১৪ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের এই চমৎকার প্রদেশের জনসংখ্যা ৩.১৩ মিলিয়ন। দুবাইয়ের প্রধান রাজস্ব আয় হচ্ছে পর্যটন, রিয়েল এস্টেট এবং অর্থনৈতিক সেবা।

Read more

Blogger. Music enthusiast. Free thinker.

Assistant Manager
Flight Expert.

www.flightexpert.com

টার্কিশ এয়ারলাইন্স

টার্কিশ এয়ারলাইন্সে ভ্রমণ | ভ্রমণ করুন ইউরোপের সেরা এয়ারলাইন্সে

পূর্ব ইউরোপে অবস্থিত তুরস্কের জাতীয় এয়ারলাইন্স বা ফ্ল্যাগ ক্যারিয়ার হল টার্কিশ এয়ারলাইন্স। এর সদর সপ্তর ইস্তানবুলের আতাতুর্ক বিমানবন্দরে অবস্থিত। টার্কিশ এয়ারলাইন্স এর মোট চারটি হাব রয়েছে। এগুলো তুরস্কের আঙ্কারা, আতাতুর্ক, সাবিহা গোকসেন, ও ইস্তাম্বুল (নতুন) বিমান বন্দরে অবস্থিত। এর মধ্যে প্রধান হাব আতাতুর্ক বিমান বন্দরে অবস্থিত।

তুরস্কের জাতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্ত একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে ১৯৩৩ সালের ২০ মে টার্কিশ এয়ারলাইন্স প্রতিষ্ঠিত হয়। মাত্র ৫ টি ছোট আকৃতির বিমান নিয়ে তাদের যাত্রা শুরু হয়। এর মধ্যে দুইটি পাঁচ আসন বিশিষ্ট, দুইটি চার আসনবিশিষ্ট এবং একটি দশ আসনবিশিষ্ট বিমান ছিল। প্রাথমিক ভাবে টার্কিশ এয়ারলাইন্স একটি ডোমেস্টিক এয়ারলাইন্স হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। এর পর ১৯৪৭ সালে আঙ্কারা – এথেন্স ফ্লাইট চালুর মাধ্যমে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পা রাখে টার্কিশ এয়ারলাইন্স। এরপর তারা সাইপ্রাস, লেবানন এবং মিশরেও ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করে।

Top reasons to fly with Turkish Airlines
টার্কিশ এয়ারলাইন্স

Read more

Blogger. Music enthusiast. Free thinker.

Assistant Manager
Flight Expert.

www.flightexpert.com

ফ্রি ওয়াই ফাই ব্যাবহারে সতর্কতা | ফ্রি ওয়াইফাই এর নিরাপত্তা টিপস

ফ্রি ওয়াই ফাই ব্যাবহার করতে কার না ভাল লাগে! বিমান যাত্রীদের সুবিধার্থে সাধারণত সব এয়ারপোর্ট, লাউঞ্জ, হোটেল ইত্যাদি জায়গা গুলোতে ফ্রি ওয়াই ফাই এর সুব্যাবস্থা থাকে যা নিঃসন্দেহে উপভোগ্য। কিন্তু এসব ওয়াই ফাই আপনার অনলাইন অবস্থানের জন্য কতটুকো নিরাপদ সেটাও একবার ভেবে দেখা উচিৎ। আপনি যদি ফ্রি অথবা পাবলিক ওয়াই ফাই ব্যাবহার করেন, সেক্ষেত্রে আপনার ব্যাক্তিগত তথ্য সমুহের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হবার একটা সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়।

ফ্রি বা পাবলিক ওয়াই ফাই ব্যাবহার করলে সেক্ষেত্রে সবচাইতে বড় যে সমস্যাটি হতে পারে সেটি হল আপনার ব্যাক্তিগত তথ্য এবং আপনার ইন্টারনেট ব্রাউজিং হিস্টোরি চুরি হওয়া। ফ্রি ওয়াই ফাই ব্যাবহার করে আপনি যেসব ওয়েবপেজ বা ওয়েবসাইট ব্যাবহার করবেন, সেটা অন্য কেউ ইচ্ছা করলেই অন্য কেউ দেখে নিতে পারবে। শুধু তাই না, আপনার ফেসবুক, টুইটার, স্কাইপ বা জি মেইলের মত গুরুত্বপূর্ণ একাউন্ট গুলোর পাসওয়ার্ড সহ লগইন ডিটেইলস বেহাত হয়ে যাবার সম্ভাবনা আছে। আর অনলাইন এ লেনদেন করলে সেক্ষেত্রে আপনার ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডের পিন নম্বর সহ অন্যান্য তথ্যাদিও চুরি হবার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। আমি বলছি না যে ফ্রি ওয়াই ফাই ব্যাবহার করলেই এসব তথ্য চুরি হয়ে যাবে। তবে তথ্য গুলো অনেকের কাছেই উম্মুক্ত হয়ে যাবে। এর মধ্যে যে কেউ ইচ্ছা করলেই আপনার তথ্য ব্যাবহার করে আপনাকে বিপদে ফেলতে পারে, যা কারই কাম্য নয়।

Read more

Blogger. Music enthusiast. Free thinker.

Assistant Manager
Flight Expert.

www.flightexpert.com

ইন্ডিগো এয়ারলাইন্স

ইন্ডিগো এয়ারলাইন্স – ভ্রমণ করুন সবচাইতে সাশ্রয়ী এয়ারলাইন্সে

বিমান ভ্রমণের আগে আমাদের মাথায় যে কথা গুলো আসে সেগুলোর মধ্যে একটি হল, বিমান ভাড়া অত্যন্ত বেশী। কথাটা পুরোপুরি অযৌক্তিকও না। যেহেতু আকাশ পথে ভ্রমণ এবং খুব কম সময়ের মধ্যে আপনি আপনার গন্তব্যে পৌছাতে পারছেন, সেহেতু এটা স্বাভাবিক যে আপনাকে বেশ বড় অংকের টাকা গুনতে হবে টিকিটের দাম বাবদ।

তবে সব এয়ারলাইন্সের ভাড়া কিন্তু একরকম না। কিছু কিছু এয়ারলাইন্স আছে যাদের ব্যাবসার মুল লক্ষ্য থাকে সর্বনিম্ন খরচে যাত্রীদের গন্তব্যে পৌঁছে দেয়া। স্বাভাবিকভাবেই এসব এয়ারলাইন্সের টিকিট অনেক বেশী বিক্রি হয়, তাই তারা পুষিয়ে নিতে পারে। এই এয়ারলাইন্সগুলোকে বাজেট এয়ারলাইন্স বলা হয়ে থাকে। আমরা যারা সাধারণ, পরিশ্রমী এবং মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত ঘরের মানুষ, তাদের জন্য এই সব বাজেট এয়ারলাইন্স অনেকটা আশীর্বাদের মত।

ভারত বিশাল একটি দেশ এবং এখানে প্রচুর স্বল্প আয়ের মানুষ আছে যাদের অনেক সময়েই বিভিন্ন কাজে বিমান ভ্রমণ করতে হয়। এই স্বল্প আয়ের মানুষদের সীমাবদ্ধতার কথা মাথায় রেখেই ভারতের বেশ কিছু এয়ারলাইন্স কাজ করছে। এর মধ্যে সবার আগে চলে আসে ইন্ডিগো এয়ারলাইন্সের নাম।

ইন্ডিগো এয়ারলাইন্স
ইন্ডিগো এয়ারলাইন্সের এয়ারবাস ৩২০ – ২০০

Read more

Blogger. Music enthusiast. Free thinker.

Assistant Manager
Flight Expert.

www.flightexpert.com

ড্রিমলাইনার ৭৮৭ এ ইন্টারনেট ও ফোন কল – সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ার যাত্রীদের জন্য বিশেষ সুবিধা

বাংলাদেশের বিমানের পরিচালনার ইতিহাসের একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন ছিল ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮। ঐদিন বাংলাদেশ বিমান সাম্প্রতিক সময়ের আলোড়ন সৃষ্টিকারী বোয়িং ড্রিমলাইনার ৭৮৭ এর উদ্বোধনী ফ্লাইট পরিচালনা করে। গন্তব্য ছিল ঢাকা থেকে মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুর। এর আগে আগস্টের ১৯ তারিখে বোয়িং কোম্পানি থেকে প্রথম ড্রিমলাইনার ৭৮৭ বিমানটি বাংলাদেশে এসে পৌছায়। দশ বছর আগে বোয়িং এর সাথে বিমান বাংলাদেশের চুক্তি হয় চারটি ড্রিমলাইনার ৭৮৭ কেনার। সেই চুক্তি অনুযায়ী হাতে পাওয়া প্রথম বিমান এটি। চলতি বছর নভেম্বর মাসে আরেকটি ড্রিমলাইনার ৭৮৭ বাংলাদেশ বিমানের বহরে যুক্ত হবে। ২০১৯ সালের মধ্যে বাকি দুটি ড্রিমলাইনারও এসে পড়বে।

এ বোয়িংটি সহ বিমান বাংলাদেশ বিমানের মোট বিমান সংখ্যা ১৫ তে গিয়ে দাঁড়াল।

বিষয়টি বাংলাদেশের তথা প্রবাসি বাংলাদেশী বিমান যাত্রীদের মধ্যে বেশ উত্তেজনার সৃষ্টি করেছে। এর কারন ড্রিমলাইনার ৭৮৭ এর অত্যাধুনিক সব ফিচারস, যেগুলো বাংলাদেশ তো বটেই, অনেক উন্নত রাষ্ট্রের কাছেও বেশ চমপ্রদ এবং নতুন একটি ব্যাপার। প্রথম ড্রিমলাইনার ৭৮৭ টির নাম রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নাম দেয়া হয় আকাশবীণা। ২৭১ আসন বিশিষ্ট বিমানটি বর্তমানে ঢাকা থেকে রিটার্ন সহ কুয়ালালামপুর ও সিঙ্গাপুরে ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

Read more

Blogger. Music enthusiast. Free thinker.

Assistant Manager
Flight Expert.

www.flightexpert.com

ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স

ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সে ভ্রমণ – ইউ এস বাংলা বিমান টিকেট, গন্তব্য, ভাড়া, আসন সহ সব তথ্য

ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স বাংলাদেশের বহুল প্রচলিত এবং জনপ্রিয় বেসরকারী বিমান সংস্থা। এটি যুক্তরাষ্ট্র এবং বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত ইউ এস বাংলা গ্রুপের একটি প্রতিষ্ঠান। ২০১৪ সালের জুলাই মাসে ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স তাদের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করে। ন্যায্য ভাড়া এবং সময় নিয়ন্ত্রিত বিমান পরিচালনা করার ফলে প্রতিষ্ঠার কয়েক বছরের মধ্যেই ইউ এস বাংলা দেশের অন্যতম বৃহৎ ও জনপ্রিয় একটি বিমান সংস্থায় পরিনত হয়। সম্প্রতি ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সের চতুর্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত হয়। এ জন্যে আমরা তাদের জানাই আন্তরিক অভিনন্দন।

শুরুর দিকে ইউ এস বাংলা দেশের অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটগুলোর দিকে মনোযোগী হয়। সেবার মান ভাল হওয়ায় তারা গ্রাহকদের মাঝে চাহিদা সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়। যার ফলে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট সংখ্যা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের জন্যে তারা কানাডা নির্মিত বোম্বারডিয়ার ড্যাশ ৮-কিউ ৪০০ বিমান ব্যাবহার করে। আন্তরিক চেষ্টা এবং গ্রাহকদের কাছে জনপ্রিয়তা অটুট থাকার কারণে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই বাংলাদেশের ৮ টি অভ্যন্তরীণ রুটে নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনায় সক্ষম হয় ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স। দীর্ঘদিন তারা বেশ সুনামের সাথে এই রুটগুলোতে ফ্লাইট পরিচালনা করে আসছে।

Read more

Blogger. Music enthusiast. Free thinker.

Assistant Manager
Flight Expert.

www.flightexpert.com

বাংলাদেশ পাসপোর্ট

পাসপোর্ট কিভাবে করবেন । নতুন বাংলাদেশ পাসপোর্ট করতে হলে যা জানা দরকার

পাসপোর্ট কি এটা আমরা সবাই কমবেশি জানি। দেশের বাইরে যেতে হলে সবার আগে এই জিনিসটির প্রয়োজন হয়ে থাকে। এক কথায় পাসপোর্ট হল দেশের সরকার দ্বারা দেশের নাগরিকদের দেশের বাহিরে যাবার বৈধ অনুমতি সম্বলিত একটি বই, যেখানে বিভিন্নও এম্বেসির মাধ্যমে বিভিন্ন দেশের ভিসা লাগানো হয়। বাংলাদেশ পাসপোর্ট হল বাংলাদেশ সরকার দ্বারা প্রদত্ত সেই অনুমতি সম্বলিত বই। বাংলাদেশের নাগরিকদের জন্য সরকার তিন ধরনের বাংলাদেশ পাসপোর্ট ইস্যু করে থাকেঃ

  • আন্তর্জাতিক সাধারণ পাসপোর্ট (সবুজ মলাট)
  • সরকারী পাসপোর্ট (নীল মলাট)
  • কূটনৈতিক পাসপোর্ট (লাল মলাট)

বাংলাদেশ পাসপোর্ট তৈরি নিয়ে অনেকের মনে অনেক ধরনের কনফিউশন বা দ্বিধা এমন কি ভীতিও আছে। এটা থাকা মোটেও কোন দোষের কিছু না। যে কাজ আপনি কখনো করেননি সেটা নিয়ে ভীতি থাকতেই পারে। তাছাড়া বাংলাদেশের সরকারী পাসপোর্ট অফিসগুলোর যে অবস্থা তাতে এটা মোটেই অস্বাভাবিক না। সরকারী ওয়েবসাইট বা বিভিন্নও ব্লগ গুলোতে যতটা সহজ ভাবে বাংলাদেশ পাসপোর্ট তৈরির ব্যাপারে লেখা হয়ে থাকে, বাস্তব অবস্থা অনেক ক্ষেত্রেই মোটেই তেমন না।

Read more

Blogger. Music enthusiast. Free thinker.

Assistant Manager
Flight Expert.

www.flightexpert.com

ইন্ডিয়ান ভিসা

ইন্ডিয়ান ভিসা – দালালের খপ্পড়ে না পড়ে নিজেই করুন নিজের ভিসা

ইন্ডিয়ান ভিসা করার জন্য অনেকেই দালালের কাছে ধর্না দেন, এতে টাকাও খরচ হয় প্রচুর আর সেই সাথে উল্লেখ্য কারনে ভিসা বাতিল হবার সম্ভাবনাও থেকে যায়। অথচ একটু সতর্ক হলে, একটু সময় ব্যয় করে ইন্ডিয়ান ভিসার জন্য নিজে নিজে অ্যাপ্লাই করতে পারলে অযথা বাড়তি টাকা কেন খরচ করবেন? ইন্ডিয়ান ভিসা অ্যাপ্লিকেশনের জন্য সহজ কিছু ধাপ জানলে আর এর কাছে ওর কাছে ছুটতে হবে না।

Read more