fbpx

যে ১০টি কাজ আপনার ঈদ ভ্রমণকে করে তুলবে আরো সহজ

এই ঈদের ছুটিতে সড়ক ও বিমানপথে ভ্রমণ করবেন দেশের বেশিরভাগ মানুষ। দুরপাল্লার ভ্রমণগুলোতে প্রায়ই আমরা বিভিন্নরকম বাঁধা-বিপত্তির সম্মুখীন হই। তাই অন্যের বিরক্তির উদ্রেক না করে ঈদ মৌসুমে যাত্রাপথে যেন সহজ ও সুন্দর ভ্রমণ হতে পারে তা জন্য কিছু টিপস।

১। দূরপাল্লার যাত্রার সময় দরকার না থাকলে আপনার ফোনটি ফ্লাইট মোডে রাখুন। নইলে ফোনের ব্যাটারি ডিসচার্জ হবে দ্রুত। ফোনের ডিসপ্লের ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখুন এবং সম্ভব হলে সাথে পাওয়ার ব্যাংক রাখুন।

 

২। ঢাকা থেকে আশপাশের যেকোন ভূভাগেই তাপমাত্রার তারতম্য থাকার কারনে অনেকে যাত্রাপথে প্রচুর পরিমাণ গরম কাপড় সাথে নিয়ে রাখেন। শুধুমাত্র ঠান্ডা লাগবে এই ভয়ে, মোটা মোটা জামাকাপড় জড়াবেন না বা ঘরবন্দি হয়ে থাকবেন না। সর্দিজ্বর হলে ওই কারণেই হবে।

 

৩। ঈদের ছুটিতে ভ্রমণের চাপ দেশের সব যায়গাতেই থাকে। সেজন্য আগেভাগে টিকেট করে রাখুন। আর দিন-রাত ২৪ ঘন্টা অনলাইনে যেকোন ফ্লাইটের টিকিট কাটতে আমরা তো আছিই!

 

৪। যেখানে সেখানে ময়লা ফেলবেন না। আপনার বাচ্চার চিপ্সের প্যাকেট থেকে শুরু করে মুদি দোকান থেকে কেনা কলার খোসা পর্যন্ত- সব প্যাকেটে ভরে রেখে দিন যতক্ষণ না পর্যন্ত ময়লা ফেলার নির্দিষ্ট স্থান খুঁজে না পাচ্ছেন।

 

৫। দয়া করে ট্রেনে, প্লেনে, রেস্তোঁরায় অর্থাৎ সব পাবলিক প্লেসে অযথা চিৎকার চেচামেচি করবেন না। বাচ্চাদেরও সামলে রাখুন। যাত্রাকালীন সময়ে মাঝরাতে বা ভোরবেলা অহেতুক আলো জ্বালিয়ে, জোরে জোরে কথা বলে বা গান বাজিয়ে বাকিদের বিরক্তির উদ্রেক করবেন না।

 

৬। বাস, ট্রেন বা বিমান হোক- নিজের সুবিধার কথা বিবেচনা করে অন্যের সিটে বসে পড়বেন না। এটা ভ্রমণকালীন সাধারণ শিষ্টতার মধ্যে পড়ে।

 

৭। অনেকের মধ্যেই বিমান ল্যান্ড করার আগেই সিটবেল্ট খুলে উঠে পড়া অথবা ট্রেন বা বাস থামার আগেই হুড়মুড়িয়ে নামার প্রবণতা দেখা যায়। এটি একই সাথে ঝুঁকিপূর্ণ ও অশোভন একটি চর্চা। দয়া করে এই কাজটি করবেন না।

 

৮। বিমানে ভ্রমণকালীন সময়ে এয়ারপোর্টের উদ্দেশ্যে বের হওয়ার আগে প্রয়োজনীয় সব কাগজপত্র নিয়েছেন কিনা দেখে নিন। যেমন, পাসপোর্ট, ভ্রমণ সঙ্ক্রান্ত কাগজপত্র, ভিসা ইত্যাদি। দেশের অভ্যন্তরে হয়ত আরো কম কাগজপত্র দরকার হবে। আপনাকে বিভিন্ন নিয়মের মধ্য দিয়ে যেতে হব আর এতে কিছু সময়ও লাগবে। তাই দ্রুত এয়ারপোর্ট পৌছে যাওয়াই ভালো। যারা দেশের বাইরে ভ্রমণ করবেন অন্তত ৩ ঘন্টা আগে এয়ারপোর্টে পৌছান। দেশের অভ্যন্তরে হলে ১ ঘন্টাই যথেষ্ট।

 

৯। ডোমেস্টিক বা ইন্টারন্যাশনাল ফ্লাইটে আপনি যদি সঙ্গে লাগেজ বা ব্যাগ নিয়ে থাকেন তবে জেনে নিন কতটুকু ওজন আপনি নিতে পারবেন। এটি এয়ারলাইন্স ভেদে ভিন্ন হয়ে থাকে। ওজন বেশী হলে আপনাকে লাগেজের জন্য ভাড়া দিতে হবে। এয়ারপোর্টের ভেতরেই ভাড়া দেওয়ার ব্যবস্থা আছে।

 

১০। বেশী নগদ টাকা নিয়ে ঘুরবেন না। চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি যে কোন সময় হতে পারে। এটিএম বা অনলাইন ট্র্যানজ্যাকশন করুন। সাথে বেশি নগদ টাকা থাকলেও চেষ্টা করুন কয়েক ভাগে ভাগ করে ভিন্ন ভিন্ন যায়গায় রাখতে।

এই ঈদে প্রিয়জনকে নিয়ে আপনার ঈদ হোক আনন্দময় ও স্মরণীয়। যাত্রাপথে নিজে সতর্ক থাকুন ও অন্যকে সহায়তা করুন। নিজের ও পরিবারের সাথে আশেপাশের মানুষের ঈদ যাত্রাও যেন শুভ হয়, সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে আমাদেরই। ঈদ মুবারক!

 

Comments
Posts created 258

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Posts

Begin typing your search term above and press enter to search. Press ESC to cancel.

Back To Top